1. admin@samokalbarta.com : admin :
শুক্রবার, ২৪ মার্চ ২০২৩, ০৭:০৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
মাগুরায় গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক মাগুরায় নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে বিএনপির মানববন্ধন ঝিনাইদহ ক্যাডেট কলেজে চান্স পেলো চেয়ারম্যান পুত্র কাফি মাগুরার মহম্মদপুর থানার অভিযানে গাঁজাসহ ০১ (এক) জন মাদকব্যবসায়ী গ্রেফতার জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি), মাগুরাʼর অভিযানে ২০০ (দুইশত) গ্রাম গাঁজা সহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার  মাগুরায় যথাযোগ্য মর্যাদায় আন্তর্জাতিক নারী দিবস-২০২৩ পালিত মাগুরার মহম্মদপুরে হত্যাকাণ্ডের ৩ ঘন্টার মধ্যে প্রধান আসামি সোহেল গ্রেফতার মাগুরায় জনপ্রতিনিধির নামে কুরুচিপূর্ণ ও আপত্তিকর মন্তব্যের কারনে মামলা করায় আওয়ামী লীগের বিরোধ প্রকাশ্যে রাজশাহীতে মাগুরা জেলা সমিতির সভাপতি শুভ শিকদার, সম্পাদক মোঃ আল আমিন  মাগুরা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতির বিরুদ্ধে অপপ্রচার ও ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ

মাগুরায় বিদ্যুতের দাম বাড়ানো বন্ধে বাম গণতান্ত্রিক জোটের সমাবেশ অনুষ্ঠিত

আজকের মাগুরা ডেস্ক
  • আপডেট সময় : শনিবার, ৮ অক্টোবর, ২০২২
  • ৮২ বার পঠিত

বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর পাঁয়তারা বন্ধের দাবিতে বাম গণতান্ত্রিক জোট মাগুরা জেলার উদ্যোগে দেশব্যাপী কর্মসূচির অংশ হিসেবে ৮ অক্টোবর ২০২২ সকাল ১১টায় চৌরঙ্গী মোড়ে মাগুরা জেলা প্রেসক্লাবের সামনে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন বাম গণতান্ত্রিক জোট মাগুরা জেলার সমন্বয়ক ও বিপ্লবী কমিউনিস্ট লীগের কেন্দ্রীয় নেতা শিক্ষাবিদ কাজী নজরুল ইসলাম ফিরোজ। সমাবেশ পরিচালনা করেন বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ মাগুরা জেলা আহ্বায়ক প্রকৌশলী শম্পা বসু। বক্তব্য প্রদান করেন, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি মাগুরা জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক এটিএম আনিসুর রহমান।

বিদ্যুৎ খাতে চলছে অপচয় ও মহাদুর্নীতি। এ কারণে বার বার বাড়ানো হচ্ছে বিদ্যুতের দাম। এই অযৌক্তিক দাম বাড়ানো জনগণ আর মেনে নেবে না। বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির পাঁয়তারা বন্ধের দাবিতে আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে এসব কথা বলেছেন বাম গণতান্ত্রিক জোট মাগুরা জেলা শাখার নেতৃবৃন্দ।

বাম জোটের নেতারা বলেন, অযৌক্তিকভাবে বেশি খরচে বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে। অনেক বিদ্যুৎকেন্দ্র বসিয়ে রেখে অহেতুক ভাড়া দেওয়া হচ্ছে। বিদ্যুৎ খাতে এই দুর্নীতি, অপচয় ও সিস্টেম লস দূর করা হয়নি। এ অবস্থায় খরচ বেড়েছে বলে বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর যে প্রস্তাব করা হয়েছে, তা অন্যায্য, অন্যায় ও অনৈতিক। অযৌক্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের জন্য ব্যয়ের টাকা জনগণ দেবে না।

সমাবেশে বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির পাঁয়তারা বন্ধ করা, রেন্টাল ও কুইক রেন্টাল বিদ্যুৎকেন্দ্র বাতিল করা, জ্বালানি খাতের অপচয় ও দুর্নীতি বন্ধ করা এবং দুর্নীতিবাজদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়ার দাবি জানানো হয়েছে।

জ্বালানি খাতে ভুল নীতি ও দুর্নীতি উৎপাদন খরচ বৃদ্ধির জন্য দায়ী বলে দাবি করেন বক্তারা। তাঁরা বলেন, বিদ্যুতের উৎপাদন বেড়েছে, এটা ঠিক। কিন্তু ৫০ শতাংশ বিদ্যুৎকেন্দ্র বসিয়ে রেখে ভাড়া দেওয়া হচ্ছে। এ জন্য বছরে হাজার হাজার কোটি টাকা নষ্ট করা হচ্ছে। দেশি-বিদেশি লুটেরা ও কমিশনভোগীদের পকেট ভারি হচ্ছে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা